ডিপিএলবাংলাদেশ

ঈদের আগে ফিরছে না ডিপিএল

0

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের বাকি ম্যাচগুলো কক্সবাজার এবং বিকেএসপিতে খেলানোর কথা ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যদিও দিনক্ষণ ঠিক হয়নি, তবে খুব শীঘ্রই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানা যাবে।

ক্রিকেট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (কোয়াব) গত ৭ জুলাই সিনিয়র ক্রিকেটারদের সাথে অনলাইনে ডিপিএলের ভবিষ্যত নিয়ে আলোচনা করেন। সেখানে এই সিদ্ধান্ত আসে। উল্লেখ্য, গত মার্চে ডিপিএল শুরু হবার পর মাত্র এক রাউন্ড শেষেই কোভিড-১৯ এর জন্য খেলা বন্ধ করে দেয়া হয়।

ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) এর চেয়ারম্যান কাজি ইনাম আহমেদ এবং বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরীও এই মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করেন। কাজি ইনাম বিসিবির হয়ে মিডিয়াকে জানান, ‘আমরা কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসিনি, এখনও কোন দিনতারিখ ঠিক করা হয়নি। তবে আমরা ক্লাবগুলোকে প্রস্তুত থাকতে বলেছি। তাদের ক্রিকেটারদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে বলেছি যাতে সিদ্ধান্ত নিলে দুই সপ্তাহের মধ্যেই আমরা ক্রিকেটে ফিরতে পারি।’

‘আমরা কোয়াব, জাতীয় দলের কয়েকজন ক্রিকেটার এবং কয়েকজন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের সঙ্গে মিটিং করেছি। ডিপিএল কবে থেকে শুরু করা যায় এসব বিষয় নিয়ে আমাদের কথা হয়েছে। যদিও আমরা কোন তারিখ ঠিক করতে পারিনি, তবে আমরা ক্লাবগুলোকে জানিয়েছি যাতে তারা তাদের প্লেয়ারদের সাথে ভার্চুয়ালি যোগাযোগ রাখে এবং প্লেয়ারদের ফিটনেস সম্পর্কে তাগাদা দেয়।’

‘ক্লাবগুলোর ভবিষ্যতের পরিস্থিতি সম্পর্কে প্রস্তুত থাকতে হবে যাতে খেলা শুরুর মত পরিস্থিতি হলে আমরা ১৫ দিনের নোটিশেই খেলা শুরু করতে পারি। আমি ডিপিএল খেলার জন্য কক্সবাজার এবং বিকেএসপির ভেন্যু প্রস্তাব করেছি। কেননা এই দুই ভেন্যুতে সকল ক্লাব কর্মকর্তা ও ক্রিকেটারদের আইসোলেশন মেনে থাকার ব্যবস্থা করা যাবে।’

ইনাম আরও জানান, কোয়াব বিসিবির কাছে প্রস্তাব দিয়েছে যেন প্রত্যেক প্লেয়ারের ক্লাবের কাছ থেকে তাদের প্রাপ্য টাকার অর্ধেক পরিশোধ করা হয়। ব্রাদার্স ইউনিয়ন এবং পারটেক্সের ক্রিকেটাররা এখনও তাদের পাওনা টাকা পায়নি। এ বিষয়ে সিসিডিএম ইতোমধ্যেই ক্লাবগুলোকে ক্রিকেটারদের পাওনা টাকার অর্ধেক লিগ শুরু করার আগেই পরিশোধ করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে।

দেশে ক্রিকেট ফেরার সাথে সাথেই ডিপিএল শুরু হওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী কোয়াব চেয়ারম্যান। এমনকি বিসিবি সভাপতিও তার সাম্প্রতিক আলাপচারিতায় এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন। সামনের সপ্তাহে বিসিবির সঙ্গে ক্লাবগুলোর মিটিং আয়োজন করা হয়েছে। সেই মিটিংয়ে নিশ্চয়ই এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসবে তবে জুলাইর শেষে অর্থাৎ ঈদ উল আজহার ছুটির আগে ক্রিকেট মাঠে ফেরার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

এমএম/

You may also like

Comments

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *