বাংলাদেশ

গাঙ্গুলিকে স্লেজিং করার মজার ঘটনা জানালেন মুশফিক

0

করোনাভাইরাসের জন্য গৃহবন্দী সবাই। ক্রিকেটারদের হাতেও অখণ্ড অবসর। সময় কাটাতে ফেসবুক লাইভেও দেখা যাচ্ছে অনেককে। বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড় মুশফিকুর রহীমও তার ব্যতিক্রম নন। কিছুদিন আগে তামিম ইকবালের সঙ্গে লাইভে এসে আড্ডায় মজেছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে অনলাইনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি ক্রিকেটের ফেসবুক পেজে লাইভে এসেছিলেন দেশের বেশ কয়েকজন ক্রীড়া সাংবাদিকদের সঙ্গে। সেই লাইভে উঠে এসেছে অনেক কথা। যেখানে ছিল মুশফিকের ক্যারিয়ার শুরুর দিককার এক মজার স্লেজিংয়ের ঘটনাও।

উইকেটের পেছনে বরাবরই মুশফিকের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। কখনও বোলারকে বলে দিচ্ছেন কোন বলটা ভালো, কখনও বলছেন কোথায় বল করলে ভালো। আবার কখনওবা ঠিক করে দেন ফিল্ডারের পজিশন, আবার কখনও চেষ্টা করেন বিপক্ষ দলের ব্যাটসম্যানকে ঘাবড়ে দিতে।

তেমনি একবার তিনি মাইন্ডগেম খেলেছিলেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে। সে ঘটনাই আজকের লাইভে জানিয়েছেন তিনি। কথাপ্রসঙ্গে স্লেজিং এর কথা আসলে মুশফিক প্রথমে বলেন, ‘খেলার ভেতরে স্লেজিং বলতে যেটা বোঝায়, ওরকম কষ্ট দিয়ে আসলে কাউকে কিছু বলা হয় না। আমি এটা কখনও করি না।’

তবে পরক্ষণেই নিজের স্মৃতির পাতা থেকে একটা ঘটনা বলেন মুশফিক। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষের সেই ঐতিহাসিক ম্যাচ। সেই ম্যাচের জয়টি এখনও স্বপ্নের মতই মনে হয় হাজারো বাংলাদেশির কাছে। সেদিন গাঙ্গুলির সঙ্গে মজার এক স্লেজিংই করেছিলেন মুশফিক।

সেই ম্যাচের কথা মনে করে মুশফিক বলেন, ‘স্লেজিং না করলেও, কখনও কখনও কৌশলগত কারণে কিছু কথা তো বলতেই হয়। তেমনই একটি স্লেজিংয়ের কথা মনে আছে আমার। মজার একটা ঘটনা। (বিশ্বকাপে) আমার প্রথম ম্যাচ ছিল। সৌরভ গাঙ্গুলি তখন ব্যাটিংয়ে। ফিফটি বা এমন কিছু একটা করেছিলেন সেদিন। অনেকক্ষণ ছিলেন উইকেটে। উনি তো কলকাতার, তাই বাংলা ভালোই বোঝেন।’

‘আমাদের রাজ (আব্দুর রাজ্জাক) ভাই অথবা রফিক ভাইয়ের একজন বোলিং করছিলেন। তখন আমি গাঙ্গুলিকে বলেছিলাম, দাদা, আপনি এত মারছেন কেন? আমরা আপনার ছোট ভাই না? এত মারলে হবে? একটু ছাড়-টাড় দেন। তখন গাঙ্গুলি জবাবে বললেন, না, না! তোরা আর ছোট নেই। অনেক বড় হয়ে গেছিস। তোদেরকে ছাড় দেয়া যাবে না।’

সেদিন অবশ্য ছাড়ের দরকার পড়েনি বাংলাদেশের। মুশফিকের রহীমের চারের মাধ্যমেই ৫ উইকেটের স্বপ্নের জয় পায় বাংলাদেশ। আর সে ম্যাচের পর থেকে রঙিন পোশাকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের রঙিন দিনের সূচনা হয়।

ইজেআর/আইএস

You may also like

Comments

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *