বাংলাদেশ

সাকিবের উপলব্ধি এবং ফেরার অপেক্ষা

0

স্যাম শুভ :

সাকিব আল হাসান, বাংলাদেশ ক্রিকেটের রাজপুত্র। অভিষেকের পর থেকে সময়ের সাথে নিজেকে নিয়ে গেছেন সবাইকে ছাড়িয়ে। হয়েছেন ক্রিকেট ইতিহাসের একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে তিন ফরম্যাটেই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। নিজের অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের সাহায্যে সামনে থেকে দলকে জিতিয়েছেন বহুবার। দলীয় খেলা হওয়া সত্ত্বেও অনেক ম্যাচেই সাকিবের পারফরম্যান্স ছিল “ওয়ান ম্যান আর্মি” ধাঁচের।

বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক গতবছর ফেঁসে যান ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অফার গোপনরাখার অভিযোগে। ভারতীয় এক বাজিকরের তিনবারের অনুরোধের কথা তিনি ঠিকই মানা করে দিয়েছিলেন, কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী বোর্ড কিংবা আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগ কাউকেই এই কথাগুলো জানাননি। শেষপর্যন্ত তদন্তে তার অভিযোগ প্রমাণিত হয় ও নিজের ভুল স্বীকার করে নেয়ায় আইসিসি তাকে দুই বছরের জন্যে সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে। যেহেতু তার ভুল প্রথমবার এবং এই সময়ে অন্যকোন অপরাধে জড়িত না হন তাহলে তার শাস্তি একবছর কমিয়ে দেয়ার ঘোষণা দেয়।

আগামী অক্টোবরে সাকিবের নিষেধাজ্ঞার একবছর পূর্ণ হচ্ছে। সারাদেশের ক্রিকেট ভক্তরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের রাজপুত্রের বাইশ গজের রণাঙ্গনে ফেরার। সম্প্রতি ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকিনফোতে এক ছোট সাক্ষাৎকার দেন সাকিব। কথা প্রসঙ্গে উঠে আসে তার অপরাধের কথা।

উপস্থাপক দীপদাস গুপ্তের এক প্রশ্নের জবাবে সাকিব বলেন, ‘আপনি চাইলেই কাউকে মিথ্যা বলতে পারেন না, কিছু লুকোতে পারেন না। কিন্তু যা হবার তা তো হয়েই গেছে। মানুষ ভুল করতেই পারে। কিন্তু প্রধান বিষয় হচ্ছে আপনি সেই ভুল থেকে কিভাবে নিজেকে শুধরাবেন এবং অন্যান্যদের সচেতন করতে হবে এমন ভুল যেন তারা না করে। আমি প্রথম দিন থেকে কিছু লুকোইনি। সবকিছু একেবারে যা হয়েছে ঠিক তাই বলেছি। এমনকি যারা জিজ্ঞাসাবাদ করেন তাদেরকেও কিভাবে এবং কোথায় কি হয়েছে তাও সঠিকভাবে বলেছি।’

সাকিব আরো বলেন, ‘আমি ভুল করেছি এবং আমার মতো একজন খেলোয়াড়ের এমন ভুল মানায় না। আমি আমার এই ভুলের জন্যে লজ্জিত ও সবার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। আমার ভুলগুলো দেখে অন্যরাও যেন সচেতন হন এবং আর কারো দ্বারা এমন ভুলের পুনরাবৃত্তি যেন না হয়।’

You may also like

Comments

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *